অপূর্ণতা

মেয়েটার নাম মনি,,,খুব সাধারন,,,এস.এস.সি. পরিক্ষা দিয়েছে,,,অল্প কিছুদিন হল ফেসবুকে এসেছে,,,শুরু থেকেই এক ছেলের সাথে কথা,,,নাম ফারহান,,,প্রায় তিন চার মাস হয়ে গেছে ওদের নিয়মিত কথা হয়,,,মনি ওর প্রোফাইল থেকে জানতে পারে ও class 9 এ পরে,,,তার মানে মনি ওর থেকে সিনিয়র,,,তাই মনি ওকে মাঝে মাঝে advice দিত,পড়াশুনা নিয়ে,,,
.
ফারহান মনির pic দেখতে চাইলেও মনি দেয় না,,,at last একদিন দেয়,,,কিন্তু pic টা স্পষ্ট ছিল না,,,কারন মনি normal ফোন use করতো,,,যাই হোক সেই অস্পষ্ট pic দেখেই ফারহান মনিকে ভালবেসে ফেলে,,,মনিকে ও ওর feelings গুলো বোঝাতে চাইত,,,আর কিছুদিন হল ফারহান মনির কাছে ওর ফোন নাম্বার চাচ্ছিল,,,মনি ওকে অনেক বোঝায়,,,
দেখ ফারহান,আমি তোমার সিনিয়র,তুমি যা চাচ্ছ তা কখনো আমাদের মধ্যে possible না,,,
.
তবুও ফারহান মনির কাছে ওর ফোন নাম্বার চাইতো,,,একসময় মনি decide করে ওকে ফোনে সব ঠিক ভাবে বোঝাবে,,,তাই একদিন বিকালে মনি ফারহানকে ওর ফোন নাম্বার দেয়,,,বলে রাত এগার টার পরে ফোন দিতে,,,ফারহান খুব খুশি হয়,,,কিন্তু এদিকে মনি ভাবে কি করে ও ফারহান কে বোঝাবে,,,
.
রাত এগারটার ওপর হয়ে গেছে,,,মনি ফারহানের ফোনের অপেক্ষা করে,,,তখন প্রায় রাত দুটো,,,তাও ফারহান ফোন করে না,,,এমনকি online ও নেই,,,মনি মনে মনে অদ্ভুত এক্টা pain feel করে,,,ভাবে ফারহান কেন এমন করল?আমি ওর সাথে আর কথা বলব না,,,তারপরের দিনও ফারহানের কোন খোজ নেই,,,নিজের অজান্তে মনির চোখের কোনায় পানি এসে পরে,,,পরক্ষনেই ভাবে আমি কষ্ট কেন পাচ্ছি,,,ও তো আমার থেকে ছোট,,,২ দিন পর সকালে মনি ঘুমাচ্ছিল,,,হঠাৎ একটা msg আসে,,,মনির ঘুম ভেংগে যায়,,,msg টাতে লিখা ছিল,,,
Hi,it’s me farhan…
মনি reply দিতে চায়,,,কিন্তু অজানা এক অভিমান ওকে আটকে দেয়,,,ও reply দেয় না,,,আবার ঘুমিয়ে পরে,,,তারপর দুপুর ২টা নাগাদ মনি ফেসবুকে আসে,,,দেখে ফারহান অনেক গুলো text করছে,,, maximum গুলো তেই sorry লেখা,,,কিন্তু বাকি msg গুলো পরে মনি কান্না করে দেয়,,,msg এ লেখাছিল,,,
যেদিন তুমি আমাকে নাম্বার দিয়েছিলে ঐদিন সন্ধায় আমার byke accident হয়েছিল,,,senceless ছিলাম তাই ফোন দিতে পারি নি,,,আজ রাতে কথা হবে,,,আর তোমার জন্য একটা surprise আছে,,,
.
রাতে এগারটার দিকে ফারহানের ফোন আসে,,,
ফারহান: Hello,,,
মনি:Hello,,,ফারহান?
ফারহান: hmmm…..আগেই অনেক গুলা sorry বলে নিচ্ছি,,,আর তোমার জন্য একটা surprise আছে,,,জানি না কিভাবে accept করবা,,,
মনি:sorry কেন? আর কি surprise???
ফারহান:আমি class 9 এ পড়ি না,,,আমি একজন BSC Engineer…
মনি:তার মানে আপনি আমাকে মিথ্যা বলেছেন,,,আর কি কি মিথ্যা বলেছেন,,,আপনার নামটাও কি মিথ্যা,,,
ফারহান: না,,,শুধু,,,ঐ টুকুই মিথ্যা বলেছিলাম,,,বাকি সব সত্যি,,,জানি বিশ্বাস করতে একটু সমস্যা হবে,,,কিন্তু তোমার যা শাস্তি দেয়ার দাও,,,
মনি: কেউ ভুল স্বীকার করলে তাকে শাস্তি দিতে হয় না,,,
.
তারপর বিভিন্ন কথার একপর্যায়ে ফারহান বলে উঠে,,,
মনি আমি তোমাকে ভালোবাসি,,,জানিনা তুমি আমাকে ভালোবাস কিনা,,,কিন্তু আমি তোমাকে খুব ভালোবাসি,,,তুমি কি আমার love accept করবে,,,?
মনি এই কথা শুনে ফারহানের কাছে কিছুসময় চায়,,,ফারহান সময় দেয়,,,
.
৫ কি ৬ দিন পর মনি ওকে positive answar দেয়,,,ভালোই চলতে থাকে ওদের প্রেম,,,মনি প্রথম বার কাউকে ভালোবেসেছে,,,খুব বিশ্বাসও করে ফারহান কে,,,প্রেমের ৯ দিন পর ফারহান মনির সাথে দেখা করে,,,ফারহান মনিকে একটা golden ring দিতে চায়,,,কিন্তু মনি নিতে চায় না,,,কারণ মনি gift নেয়া পছন্দ করত না,,,ফারহান ওকে বলে,
এটা gift নয়,,,এটার মাধ্যমে আমি তোমাকে engage করতে চাই,,,
.
at last মনি ওইটা নেয়,,,
.
ঠিক তার ৪ দিন পর ওদের মধ্যে ঝগড়া হয়,,,ফারহান অনেক গুলো ঘুমের ঔষধ খেয়ে নেয়,,,ফলে প্রায় 27 hours senceless থাকে,,,sence ফিরলে ফারহান মনিকে ফোন দেয়,,,দুই জনেই ফোনে অনেক কান্না করে,,,ওরা promise করে আর কখন ঝগড়া করবে না,,,
.
তার কিছু দিন পর ফারহানের খুব জ্বর হয়,,,মনি ফারহানকে ফোন করে,,,ফোন ধরে ফারহানের বোন,
Hlw,,,
.
আপনি ফারহানের কি হোন?
.
ফারহান কে?
.(মনি কথাটা শুনে আঁতকে ওঠে)
আচ্ছা এটা যার ফোন আপনি তার কি হন?
.
আমি তার বড় বোন,,,কিন্তু এখানে তো ফারহান নামের কেউ থাকে না,,,
.
আচ্ছা এটা যার ফোন সে কই? তার কি হইছে?
.
ও তো washroom এ গেছে,,,ওর জ্বর হয়েছে,,,কিন্তু আপনি কে?
.
আচ্ছা এটা যার ফোন তার নাম কি,,,?
.
এমন সময় মোবাইল এ balance শেষ হয়ে যায়,,,তারাতারি recharge করে আবার ফোন দেয় কিন্ত no respons…অনেক বার ট্রাই করার পরে ও একই অবস্থা,,,মনি কান্নায় ভেংগে পরে,,,কিছুদিন এইভাবেই যায়,,,মনি খাওয়া দাওয়া বাদ দিয়ে দেয়,,,ধিরে ধিরে অসুস্থ হয়ে যায়,,,হঠাৎ একদিন ফারহানের ফোন আসে,,,মনি ধরে বলে,,,
কেন মিথ্যা বলছ আমাকে,,,কেন এমন করলা,,,আমার থেকে কেন hide করছ,,,আর কি কি মিথ্যা বলছ,,,?
.
তুমি ফোন দিয়েছিলে কেন? আর দিলেই যখন আপুর সাথে কেন কথা বলছ,,,?
.
তুমি এমন করতেছ কেন,,,এখানে আমার তো কোন fault নাই,,,
আচ্ছা যা মিথ্যা বলার বলছ,,,কিন্তু আমরা তো একে অপরকে ভালোবাসি তাই না…
.
ফারহান খুব অদ্ভুত behave শুরু করে,,,ওদের মাঝে প্রচুর ঝগড়া হয়,,,এইভাবে অনেক দিন ঝগড়া করে চলে,,,কিন্তু প্রায় পঞ্চাশ তম দিন ওদের breakup হয়,,,তারপরের দিন মনি ফারহানকে ring ফিরিয়ে দেয়,,,মনি ধিরে ধিরে আরো অসুস্থ হয়ে যায়,,,মনি ফারহানের এক বন্ধুর কাছ থেকে জানতে পারে ফারহান ওকে ভালবাসেনা,,,ও অন্য আরেক জনকে love করে,,,ও মনির সাথে শুধু timepass করত,,,এইসব শুনে মনি অনেক কষ্ট পায়,,,অন্য রকম সিদ্ধাত নিয়ে ফেলে,,,ভাবে এরকম টা করলেই হয়ত এই কষ্ট থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে,,,ও সুইসাইড করার সিদ্ধান্ত নেই …but সে আবার ভাবে কেন আমি তার জন্য সুইসাইড করব …যার জন্য সুইসাইড করতে  চাচ্ছি সে তো ঠিকই সুখী  থাকবে , তার তো কোনো প্রবলেম হবে না …তাহলে আমি কেন সুইসাইড করব ….কিন্তু সে একটা মার্ডার করার ডিসিশন নেই ….সে ডিসিশন নেয় সে মনি নাম সেই অবুজ মেয়ে কে মেরে নতুন করে জীবন শুরু করবে ….

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s